সালমানের পাশে দাঁড়ালেন প্রাক্তন প্রেমিকা ঐশ্বরিয়া

প্রকাশিত: ৪:৪৩ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ২৭, ২০১৬

সালমানের পাশে দাঁড়ালেন প্রাক্তন প্রেমিকা ঐশ্বরিয়া

download (1)বিনোদন ডেস্ক : একসময়ে তারা দুজন ছিলেন প্রেমিক-প্রেমিকা। এরপর ঘটেছে বিচ্ছেদ। বহুদিন কেটে গেছে। কিন্তু কখনোই আর দুজনকে একসঙ্গে দেখা যায়নি। বিভিন্ন বিষয়ে ঐশ্বরিয়াকে নিয়ে কখনো মজার ছলে আবার কখনো অতীতকে মনে করে সালমান নানা কথা বললেও, মুখে কুলুপ দিয়েছিলেন ঐশ্বরিয়া। আসন্ন রিও অলিম্পিক গেমসে ভারতীয় ক্রিয়াদলের শুভেচ্ছাদূত হিসেবে মনোনয়ন পেয়ে বিতর্কে জড়িয়েছেন ‘ভাইজান’। বিব্রতকর এমন সময়ে সালমানের পাশে দাঁড়ালেন প্রাক্তন প্রেমিকা ঐশ্বরিয়া রাই বচ্চন।

এক অনুষ্ঠানে এ বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে সালমানের নাম উল্লেখ না করে অ্যাশ বলেন- শিল্প, সাহিত্য, ক্রীড়ার উন্নতির জন্য যদি কেউ কাজ করেন, তিনি দেশের প্রতিনিধিত্ব করতেই পারেন। তাকে সেই স্বীকৃতি দেয়া প্রয়োজন।

সালমান এবং ঐশ্বরিয়ার প্রেম এবং পরবর্তী সময়ে দুজনের তিক্ততা বলিউডে তো বটেই, অসংখ্য ভক্তের কাছে এখনও চর্চার বিষয়। প্রায় দেড় দশক আগে দুজনের সম্পর্কচ্ছেদের পরে সালমানের বিরুদ্ধে মারধরের অভিযোগ করেছিলেন ঐশ্বরিয়া।

১৯৯৮ সালে ‘হাম দিল দে চুকে সানাম’ ছবির সুটিং চলাকালীন ঘনিষ্ঠতা হয়েছিল দুজনের। সালমানের আগ্রহেই ওই ছবিতে ঐশ্বরিয়াকে নিয়েছিলেন পরিচালক সঞ্জয় লীলা বানশালী। আর ২০০২ সালে ঐশ্বরিয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেছিলেন, সালমানের সঙ্গে আমার আর সম্পর্ক নেই। কিন্তু ও তা বুঝতে চাইছে না। এখনও আমাকে বিরক্ত করে।

বিচ্ছেদের পরে সালমান সংবাদমাধ্যমের সামনে নীরব থাকলেও বিভিন্ন সময়ে তিনি ঐশ্বরিয়ার অভিযোগ অস্বীকার করেন। দাবি করেছেন, ঐশ্বরিয়াকে তিনি কোনো দিনই মারধর করেননি। এমনকী, সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে আরেক প্রাক্তন প্রেমিকা ক্যাটরিনা কাইফকে ‘প্রয়োজন নেই’বলে মন্তব্য করলেও ঐশ্বরিয়া সম্পর্কে চটুল বা কটূ কোনও কথাই সালমানকে প্রকাশ্যে বলতে শোনা যায়নি। বরং ওই সাক্ষাৎকারে ঐশ্বরিয়ার প্রসঙ্গ ওঠায় প্রশ্নকর্তাকে থামিয়ে দিয়েছিলেন সাল্লু।

বিচ্ছেদের পরে কখনও কখনও মুখোমুখি হলেও সালমান ও ঐশ্বরিয়া পরস্পরকে সন্তর্পণে এড়িয়ে গিয়েছেন। বছর চারেক আগে শচীন টেন্ডুলকরের জন্য মুকেশ আম্বানীর দেয়া এক পার্টিতে দেখা গিয়েছিল দুজনকে। একই সারিতে বসেছিলেন সালমান, ঐশ্বরিয়া। ছিলেন ঐশ্বরিয়ার স্বামী অভিষেক বচ্চনও। প্রাক্তন প্রেমিক-প্রেমিকাকে সেদিন পরস্পরের দিকে তাকাতেও দেখা যায়নি।

এই প্রেক্ষিতে ঐশ্বরিয়ার আজকের মন্তব্যে ‘সাল্লু-অ্যাশ’ ভক্তদের অনেকের মনে ভেসে উঠছে ‘হাম দিল দে চুকে সনমে’র দৃশ্যাবলি। যদিও ছবির পর্দাতে আর কখনও তার পুনরাববৃত্তি ঘটবে, এমন দুরাশা কেউই করছেন না।

পানামা নথি বিতর্কেও আজ প্রথমবার মুখ খুলেছেন ঐশ্বরিয়া। বলেন, এ বিষয়ে ভারত সরকারের জ্ঞাতব্য তথ্য আমার এবং আমার পরিবারের তরফে পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন
  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

লাইক দিয়ে পাশে থাকুন

রাফি গার্ডেন সুপার হোস্টেল।

 

আমাদের ভিজিটর
Flag Counter

WP2Social Auto Publish Powered By : XYZScripts.com